ট্যাগের আর্কাইভ: আত্মোন্নয়ন

ধনী হওয়ার বিজ্ঞান

ধনী হতে চাইলে কী দরকার? অনেক শিক্ষা, বিশেষ পরিবেশ, ধনী বাবা-মা, বিশেষ দেশে বাস করা? না, কোনোটিই না, ধনী হতে চাইলে আপনাকে কাজ করতে হবে বিশেষ ভাবে। একই এলাকায় বাস করে কিংবা একই পেশায় থেকেই আপনি হয়ত ধনী না কিন্তু আরেকজন ঠিকই ধনী কিংবা সফল। তাতে কি প্রমাণিত হয় না যে আপনার পেশা কিংবা আপনার কাজের স্থান কোনো বাধা না? আবার ধরুন বুদ্ধিমানরা ধনী হয়, আবার গড়পড়তা বুদ্ধিমত্তার লোকরাও ধনী হয়। একই স্থানে থেকে, একই পেশায় থেকে, একই বিষয়ে একই প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করেও কেউ ধনী হয় কেউ গরিব থেকে যায়। এটি আসলে কী প্রমাণ করে? যারা ধনী নিশ্চয় তারা সেই […]

সাফল্যের সাতটি আধ্যাত্মিক সূত্র

The Seven Spiritual Laws of Success বইয়ে দীপক চোপড়া জীবনকে বদলে দেয়ার মতো কিছু সূত্রের অবতারণা করেছেন যার মাধ্যমে সাফল্য অর্জন করা যেতে পারে। এসব সূত্রের মূলে হলো এই ধারনা যে: একবার আমরা যখন আমাদের নিজেদেরকে জানতে পারি এবং প্রাকৃতিক নিয়মের সাথে ঐকতান স্থাপন করে জীবনযাপন করতে শিখি তখন স্বাভাবিকভাবেই সুস্বাস্থ্য, সুসম্পর্ক, প্রাণশক্তি, প্রাচুর্য ও কল্যাণ ধরা দেয় আমাদের কাছে, সহজেই।

সাফল্যের মন্ত্র

সাফল্যের মন্ত্র বইয়ের প্রচ্ছদ

মন্ত্রের শক্তি অনেক। বারবার পাঠের ফলে তা ভেতর থেকে বদলাতে থাকে মানুষকে, তার প্রভাব দেখা যায় বাইরেও। বিভিন্ন ধর্মে যেমন মন্ত্র আছে ঈশ্বরকে পাওয়ার, তেমনি মন্ত্র আছে সাফল্যের। সফল লোকদের জীবনের উপর গবেষণা করে আন্তর্জাতিক বেস্টসেলার লেখক অগ ম্যান্ডিনো লিখেছেন বেশ কয়েকটি বই, যার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো দ্য গ্রেটেস্ট সেলসম্যান ইন দ্য ওয়ার্ল্ড। এর মধ্যে সাফল্যের দশটি সূত্র উল্লেখ করেছেন। পরবর্তীতে আরো দুটি গ্রন্থে বর্ণনা করেছেন কিছু সূত্র। এসব সূত্র একত্রে তৈরি করা হয়েছে এই বই।
কিছু বারবার পাঠ করা হলে তা মনের মধ্যে গেঁথে যায়; একই তথ্য বারবার মনকে দিলে তা কাজের মধ্যে প্রতিফলিত হয়। এখানেই মন্ত্রের শক্তি। এখানে বর্ণিত সূত্রগুলোই তাই বারবার পাঠ করতে হবে; বারবার পাঠের মাধ্যমে তা গেঁথে যাবে মনে এবং কাজের মধ্যে প্রতিফলিত হবে। অভ্যেসে পরিণত হবে এভাবে কাজ করা। আর এসব নীতির উপর কাজের অভ্যেস গড়ে তুলতে পারলে সাফল্য নিশ্চিত। যুগ যুগ ধরে পরীক্ষিত এসব সূত্র; আপনার কাজ হবে এখানে নির্দেশিত পথে এসবের প্রয়োগ ঘটানো।

ব্যাঙকে খাও চুমু

নেতিবাচক চিন্তা ও আবেগ মানুষের সাফল্যকে বাধাগ্রস্ত করার প্রধান কারণ। তবে সুখবর হলো এই যে আপনি এটি বদলাতে পারেন। আপনি আপনার নেতিবাচক ‘ব্যাঙগুলিকে’ চুমু খেয়ে সেগুলিকে ইতিবাচকে পরিণত করতে পারেন। এই বইয়ে বর্ণিত সরল কিন্তু কার্যকর কৌশলসমূহ ব্যবহার করে আপনার জীবনের সমস্যাগুলোকে পরিণত করুন সুযোগে এবং যাপন করুন এক অসামান্য জীবন! প্রবল জনপ্রিয় লেখক ও বক্তা ব্রায়ান ট্রেসি এবং তাঁর কন্যা, মনোবিদ ক্রিস্টিনা ট্রেসি স্টেইন এই বইয়ে বর্ণনা করেছেন নেতিবাচকতার মূল কারণগুলিকে মোকাবিলা করার কৌশলসমূহ। আপনার মনের মধ্যে নেতিবাচকতার বাসাকে চিনতে এবং সেখান থেকে নেতিবাচকতাকে চিরতরে উৎখাতের পদ্ধতি; এবং জীবন ও কর্মক্ষেত্রে যেকোনো ধরনের নেতিবাচকতা ইতিবাচক সম্ভাবনা ও সুযোগ রূপান্তরের […]