Category Archives: আত্মোন্নয়ন

ন্যাড়া ও বেলতলা

কেউ যদি প্রশ্ন করে, ন্যাড়া কয়বার বেলতলায় যায়? আমার উত্তর হবে – তার কোনো ইয়ত্তা নেই। কিছু ন্যাড়া আছে বেলতলায় কখনোই যায় না। আবার কেউ কেউ না গিয়ে থাকতে পারে না। মাথায় বেল পড়লেও সে যাবে। হয়ত সেই বেল পড়ে বলেই যাবে, বেল মাথায় পড়লে যে ব্যথা পায় সেই ব্যথার পাওয়ার জন্যই সে যাবে। এরকম ন্যাড়ারা কখনো শেখে না- করেই দেখি না এটা এবার তো বেল নাও পড়তে পারে এই ভেবেই তারা আবার বেলতলায় যায়। কখনো হয়ত বেল পড়ে না, কখনো পড়ে। আমার কথাও তাই। সাঁতার না জেনে পানিতে নামলে ডোবার সম্ভাবনা বেশি, তাই বলে কি পানিতে নামব না? পানিতে […]

উচিত বলা উচিত না

আমরা কথায় কথায় বলি যে আমাদের এটা করা উচিত, এটি এরকম হওয়া উচিত, তার যাওয়া উচিত না। এরকম কথা যখন আমরা শুনি তখন অজান্তেই মনের মধ‍্যে একটা বিষয় চলে আসে: আমরা বুঝতে পারি যা হওয়ার কথা ছিল তা হয়নি। যা হওয়ার ছিল বাস্তবে তা নেই। আমাদের আশা, আমাদের কল্পনা আর বাস্তবতার মধ‍্যে পার্থ‍ক‍্যই নির্দেশ করা হয় এই ‘উচিত’ শব্দটির মাধ‍্যমে। এভাবে যখন আমরা বলতে থাকি এটা করা উচিত, সেটা করা উচিত তখন আমাদের মনে আশা ও বাস্তবতার যে ফারাক উপলব্ধি করে তার উপর ভিত্তি করে আমাদের মনে বিভিন্ন ধরনের অনুভূতির জন্ম হতে পারে। যেহেতু আমাদের আকাক্ষা আর বস্তবতার পার্থক‍্য আছে, […]

নিয়ন্ত্রণ

আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে চাই – প্রায় সবকিছুকেই আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে চাই। কিছু নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে অনেকেরই নিজেকে ভিকটিম মনে হয়, বন্দি মনে হয়, অসহায় মনে হয়, হতাশ মনে হয়। কিন্তু আসলে আমরা কী নিয়ন্ত্রণ করতে পারি সেটি ভেবে দেখি না। চাইলেই কি আমরা সব নিয়ন্ত্রণ করতে পারব? আসলে নিয়ন্ত্রণের স্তর আছে তিনটি। প্রথম স্তরের জিনিসগুলি কেউই নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। যেমন আবহাওয়া, বন‍্যা, জোয়ার-ভাটা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ, ইত‍্যাদি। দ্বিতীয় স্তরের বিষয়গুলো অন‍্যরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে কিন্তু তুমি পারো না। এর মধ‍্যে অনেক কিছুই আনা যায়। যেমন রাস্তায় চলাচলের নিয়ম। দেশের আইন। অন‍্যের আচরণ। অন‍্যের মনের অবস্থা, বিশ্বাস, কাজ। সবক্ষেত্রেই কেউ […]

থামো, গতিটা কমাও

কর্মক্ষেত্রে সাফল্যের জন্য যত বই দেখেছি প্রায় সবখানে একটা ছবি দেখতে পাই –  ব্রিফকেস হাতে দ্রুত সিঁড়ি বেয়ে উঠে যাচ্ছে স্যুটেড বুটেড মানুষ। এটাই সাফল্যের চিত্র অনেকেই কাছে। সিঁড়ি বেয়ে উপরে ওঠা। শুধু ওঠা নয় একরকম দৌড়ে ওঠা। আমরা প্রতিনিয়ত এরকম কর্মক্ষেত্রে দৌড়াচ্ছি, সব পেশায়, সবখানে। এই দৌড় কবে শেষ হবে বলা যাচ্ছে না – যদি না আমরা নিজেরা উপলব্ধি করি যে এটি কাজের কিছু না। দৌড়ানোর মধ্যেই সাফল্য নেই, সাফল্য হলো ফল লাভে। কচ্ছপের গতিতেও গন্তব্যে পৌঁছানো যায়, কখনও কখনও খরগোশকে পেছনে ফেলে দিয়ে। আপনি কি কখনো লক্ষ্য করেছেন যখন অনেক চাপের মধ্যে থাকেন, ছুটতে থাকেন, ডেসপারেট হয়ে যান […]