Tag Archives: আত্মোন্নয়ন

সুখ

গ্রীক দার্শনিক ডেমোক্রিটাস বলে গেছেন, সুখ মালিকানা আর সোনাদানার মধ্যে থাকে না, থাকে আত্মার মধ্যে। আত্মার মধ্যে সন্তুষ্টি আনতে শিখলেই আপনি সুখী হতে পারবেন। আমরা বেশিরভাগই সেটিই শিখি না, তাই সব ধনসম্পদ নিয়েও অসুখী জীবন কাটাই। ২. কেউ আপনাকে সুখী করতে পারে না, কেউ আপনাকে দু:খী করতে পারে না। আপনি নিজেই কেবল সুখী কিংবা দু:খী হতে পারেন — কোনটি হবেন সেটি আপনার পছন্দ। আপনার চারপাশে যা ঘটছে তা দেখে আপনি যে প্রতিক্রিয়া ঘটাচ্ছেন, আপনার মনের মধ্যে যে চিন্তার জন্ম দিচ্ছেন সেটিই হলো সুখ কিংবা দু:খের কারণ। চিন্তার এই প্যাটার্ন বদলালেই আপনি সকল পরিস্থিতিতে সুখী হতে পারবেন। ৩. হেলেন কেলার এক সুন্দর কথা […]

প্রক্রিয়া ও ফলাফল

অনেকেই বলেন কাজ যেভাবেই করি না কেন ফল পেলেই হলো। তারা ফলাফলে বিশ্বাসী, প্রক্রিয়ায় নয়। আসলে সঠিক প্রক্রিয়া ছাড়া কাঙ্ক্ষিত ফল লাভ করা যায় না। যে সারা বছর কোনো পড়াশোনা করেনি সে কীভাবে পরীক্ষায় প্রথম হওয়ার আশা করতে পারে? কোনো পরিশ্রম ছাড়া কেউ কীভাবে সম্পদ অর্জনের আশা করতে পারে? হ্যাঁ, অনেকেই চৌর্যবৃত্তি করে, দৃর্বৃত্তপনার মাধ্যমে শর্টকাটে কিছু উপার্জন করে – তবে সেটি সঠিক পথ নয়। প্রক্রিয়া ঠিক রাখুন, তাহলেই ফল আসবে। বীজ বপন না করেই গাছ ও ফল পেতে চাওয়া বোকামি।

চেহারা নাকি চিন্তা – কোনটি বদলানো দরকার?

সাইকো-সাইবারনেটিক্স গ্রন্থের লেখক ম্যাক্সওয়েল মাল্টজ একজন প্লাস্টিক সার্জন। প্লাস্টিক সার্জারির আদিযুগে তিনি শত শত রোগীর প্লাস্টিক সার্জারি করেছেন; তাদের চেহারা বদলে দিয়েছেন – লাজুক চেহারাকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছেন, বোঁচা নাককে খাড়া করে দিয়েছেন, কুৎসিত চেহারাকে সুন্দর করে তুলেছেন। এসব নূতন চেহারা পাওয়ার পর অনেকের ব্যক্তিত্বই বদলে গেছে। তবে তিনি এও লক্ষ্য করেছেন যে প্লাস্টিক সার্জারি করার পরও অনেকের ব্যক্তিত্ব আগের মতোই রয়ে গেছে। যারা নিজের চেহারা নিয়ে সন্তুষ্ট নন – যেমন বোঁচা নাক, কুৎসিত মুখমন্ডল, দুর্ঘটনায় নষ্ট হয়ে যাওয়া চেহারা – তারাই মূলত প্লাস্টিক সার্জারি করতে আসতেন। ড. ম্যাক্সওয়েল অনুসন্ধান চালিয়ে লক্ষ্য করলেন যে যারা কেবল বাইরের চেহারা নিয়েই অসন্তুষ্ট […]

ম্যানেজার ও কর্মীর পারফরম্যান্স

১. আপনি একজন ম্যানেজার। আপনার অধীনে কয়েকজন কর্মচারী আছে – তাদের দিয়ে কাজ করে নেয়ার দায়িত্ব আপনার। হতে পারে তাদের নিয়োগের ক্ষেত্রে আপনি কোনো ভূমিকা রেখেছেন, আপনার পছন্দমতো লোক নিয়োগের সুযোগ আপনি পেয়েছেন। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আপনি এটি পারবেন না, আপনি একদল কর্মী পাবেন যারা আগে থেকেই আছে। তাদের নিয়েই আপনাকে কাজ করতে হবে। এখন কাজ করতে গিয়ে আপনি যদি দেখেন কেউ কাজ করছে না বা করতে পারছে না, তাহলে কী করবেন? সে যে কাজ করছে না বা করতে পারছে না তার দায়িত্ব কার? অনেক ম্যানেজারকে দেখি কাজ করা কিংবা করতে না পারার দায়ভার সেই কর্মীর উপর চাপিয়ে দিয়ে নিজে […]