Tag Archives: স্বরচিত কবিতা

দুর্বলতা

তোমাকে অনেক প্রশ্নের জবাব দিয়েছি শুধু একটি প্রশ্ন আমাকে করো না ভালবাসা কী? ইন্টিগ্র্যাল ক্যালকুলাস, ফোর্থ ডাইমেনশন স্টারওয়্যার – সব কিছুর ব্যাখ্যা তোমাকে দিয়েছি নিউটনের গতির সূত্র ও সমীকরণ মার্ক্স ও এঙ্গেলসের নিগূঢ় তত্ত্ব লেনিন-মাওবাদ-সশস্ত্র বিপ্লব সব কিছু বলতে পারি শুধু একটি প্রশ্ন আমাকে করো না ভালবাসা কী? জননীর গর্ভে কীভাবে আসে সুপ্রজ সন্তান তিলেতিলে কীভাবে অগ্রসর হয় জীবন্ত বিপ্লব কবির হাতে কেন উঠে আসে স্টেনগান ছাত্রের বুকে লুকানো কেন হলুদ ককটেল গ্রামের সবুজ সন্তান কেন আজ সশস্ত্র সন্ত্রাস সব কিছুর জবাব তোমাকে দেব শুধু একটি প্রশ্ন আমাকে করো না ভালবাসা কী? ঐ বস্তুটির প্রতি আমার ভীষণ দুর্বলতা এবং স্বাধীন […]

অনুভব ৩৬

মেঘ হয়ে তো ভালই ছিলে বৃষ্টি কেন হলে বৃষ্টি যদি হলেই তবে ছেড়ে কেন গেলে মেঘ হও আর বৃষ্টি হও থাকো আমার পাশে বলতে থাকো গল্প তোমার সবুজ ঘাসে বসে অচিনপুরের গল্প কথা শুনতে ভালবাসি তোমার পাশেই ছিলাম আমি তোমার সাথেই আছি ১৫.১০.২০১৫

প্রথম গান

আমাকে তুমি একলা থাকতে দাও আমাকে আমার গানটি গাইতে দাও আমাকে একটু একলা থাকতে দাও নীরবে তুমি আমার গানটি গাও আমি একটুখানি নিরালা থাকতে চাই বসে বসে একটি ছবি আঁকতে আমি চাই আমাকে তুমি একলা থাকতে দাও আমাকে তুমি আমার হতে দাও একটুখানি একলা বসে থাকি বসে বসে তোমার মুখটি আঁকি একটুখানি নীরব হয়ে থাকি নীরব হয়ে তোমার সুরটি বাঁধি একটুখানি সুরের মাঝে থাকি সুরের মাঝে তোমার গানটি গাই গাইতে গাইতে হারাই সেকোন সুরে তোমার গানটি বাজতে থাকে দূরে দূর থেকে দূর যাচ্ছি আরো দূর জলের ভেতর বাড়ছে যেমন ঢেউ জলের কথা বলল না যে কেউ জল নিজে তাই জলের […]

ফটোগ্রাফ, হৃদয় ক্যামেরায়

তুমি একদিন লালশাড়ি পরেছিলে, রক্তের মতোই লাল কপালে সিঁদুর টিপ, বৈশাখী হাওয়ায় উদ্দাম এলোমেলো চুল, আকাশে সূর্যের প্রখরতা ছিল, এবং পর্যাপ্ত আলো। ক্যামেরার চোখে অঙ্কিত এই ফটোগ্রাফ তুমি দেখেছ অথচ আমার হৃদয় ক্যামেরার ফটোগ্রাফ তুমি কোনোদিন দেখলে না যা একান্তই আমার এবং যেখানে প্রতিফলিত তোমার সাগর চোখ। নওগাঁ, ১৯৮৮