ফেসবুকের আসক্তি: এক ভার্চুয়াল জগতের নেশা

Estimated read time 1 min read

ফেসবুক! একালের এক আজব বিস্ময়। দেখতে দেখতেই আমাদের জীবনে জায়গা করে নিয়েছে সে। সকালে ঘুম থেকে উঠেই ফেসবুকে ঢু মারা, খাওয়ার সময় ফেসবুকে চোখ বোলানো, ঘুমানোর আগেও ফেসবুকে সময় কাটানো – এ যেন এক নেশা!

ফেসবুকের এই আসক্তি আমাদের সম্পর্কগুলোকেও পাল্টে দিচ্ছে। আগে যেখানে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা মারা, আত্মীয়স্বজনের খোঁজখবর নেওয়া মানেই ছিল সরাসরি দেখা করা, এখন সবই হয়ে গেছে ভার্চুয়াল। একটা লাইক, একটা কমেন্ট, একটা শেয়ারেই মিটে যাচ্ছে সব আবেগ।

ফেসবুকের এই নেশায় আমরা হারিয়ে ফেলছি বাস্তব জগতের সুখ-আনন্দ। প্রকৃতির সান্নিধ্য, বই পড়ার মজা, নিজের সঙ্গে সময় কাটানো – এসবকিছুই যেন হারিয়ে যাচ্ছে ফেসবুকের অতল গহ্বরে।

সবচেয়ে বড় কথা, ফেসবুক আমাদের সময়ের এক বিরাট অপচয়। যে সময়টুকু আমরা পরিবারের সঙ্গে কাটাতে পারতাম, নিজের কাজে মন দিতে পারতাম, সেই সময়টুকুই আমরা ব্যয় করছি ফেসবুকে অন্যের জীবন দেখে, অন্যের পোস্টে লাইক-কমেন্ট করে।

ফেসবুকের আসক্তি শুধু সময়ের অপচয় নয়, এটি আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর। অতিরিক্ত ফেসবুক ব্যবহার বিষণ্ণতা, উদ্বেগ, নিঃসঙ্গতা, এমনকি আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়িয়ে দিতে পারে।

তাই সময় এসেছে, এই ফেসবুকের নেশা থেকে নিজেদের মুক্ত করার। নিজেকে জিজ্ঞেস করুন, ফেসবুক আপনার জীবনে কী যোগ করছে? সুখ, শান্তি, আনন্দ? নাকি শুধুই অস্থিরতা, উদ্বেগ, হতাশা?

ফেসবুকের ব্যবহার কমিয়ে আনুন। বন্ধুদের সঙ্গে সরাসরি দেখা করুন, বই পড়ুন, গান শুনুন, প্রকৃতির সান্নিধ্য উপভোগ করুন। জীবনকে উপভোগ করুন বাস্তব জগতে, ভার্চুয়াল জগতে নয়।

You May Also Like